চিত্তের অভিযাত্রা

1
344

হেন দৃষ্টিতে পাই যেন সৃষ্টির সুখ
মিশে থাকে ভালবাসা মাখা এক বুক।
বৃষ্টির মূর্ছনা করে দেয় আনমনা
দৃষ্টির আড়ালে হয়ে উঠি উন্মনা।

শরতের মেঘ যেন প্রেমে ভরা চিঠি
হাতের মুঠোয় প্রেম করে লুটোপুটি।
কাশবন দোলে দোলে দেয় ইশারা
তুমিহীন পৃথিবীটা মরু সাহারা।

কাব্যের ছলাকলা তুলে অনুরণ
শব্দের উচ্ছ্বাসে বাড়ে আয়োজন।
স্বপ্নের মত করে কবিতায় মাখি
ব্যঞ্জনা খুঁজে ফেরে তন্দ্রালো আঁখি।

জোছনার প্লাবনে ক্ষণ কাটে মগনে
তোমাতে বিভোর মন স্বপ্নীল ভুবনে।
আলপনা আঁকি যত কল্পিত দেয়ালে
হৃদয়ের কথাগুলো সুর তুলে খেয়ালে।

শাব্দিক অনুরণ শুনি বিদীর্ণ প্রহরে
তোমাকেই খুঁজে ফিরি তপ্ত এ শহরে।
দীপ্ত আলোর শিখা জ্বেলেছ এ আঁধারে
নিত্য সুখের বীণা বাজে মন পাঁজরে।

উৎসের ভিড়ে আমি তোমাকে খুঁজি
মৃত্যুর ঋণ ভেবে নীরবে পুঁজি।
সারা দিনমান যত অভিমান রচি
এভাবেই যেচে যাব যতদিন বাঁচি।

ওগো মহিয়সী, অবিনাশী তব দ্বারে
আমারে লহ বৃত্তের পরিধি করে।
আমারেই করো ওগো মরমের মাত্রা
হও মম চিত্তের শেষ অভিযাত্রা।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here